ঢাকা ০৬:২৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বর্ণাঢ্য আয়োজনে কলসকাঠী তে ঈদ পুনর্মিলনী উদযাপিত দেশ ছেড়েছেন সাবেক ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া! ঈদের জামাতের জননিরাপত্তা নিশ্চিতকল্পে প্রতি মসজিদ এবং ঈদগাহ কমিটির সাথে কথা বলে অতিরিক্ত ভলেন্টিয়ার রেখেছেন বাড্ডা থানা পুলিশ বিপুল পরিমান বিদেশী মদসহ এক মাদককারবারী’কে গ্রেফতার করেছে দাগনভূঁঞা থানা পুলিশ গোসাইরহাটে বিপুল পরিমাণ নিষিদ্ধ পলিথিন জব্দ সাংবাদিক নাদিমের প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল সাংবাদিক অপহরণ মামলার মূল হোতা কাউছার মুন্সি সহ দুইজন আটক; আলামত উদ্ধার পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিশ্বাস মুতিউর বাদশা! জাতীয় দৈনিক আজকালের কন্ঠে  রিপোর্টার হিসেবে নিয়োগ পেলেন সাংবাদিক মোঃ- আতাউল্লাহ রাফি মতিঝিল থানা সহ দেশবাসীকে পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জননন্দিত যুবলীগ নেতা হাসান উদ্দিন জামাল!

কুলাউড়া মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম সমিতির অবৈধ চাঁদা দাবী

  • আপডেট সময় : ০৪:১৯:৪৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৩ অক্টোবর ২০২৩
  • ২১৪৩ বার পড়া হয়েছে

মোঃ জাকির হোসেন স্টাফ রিপোর্টার:- জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি’র কাছে অবৈধ ও অনৈতিক ভাবে চাঁদা দাবী করেছে কুলাউড়া মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি। গত ১১ অক্টোবর কুলাউড়া উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি নামের একটি সমিতি, জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি’র কাছে চিঠি দিয়ে প্রোগ্রাম প্রতি তিন হাজার টাকা চাঁদা দাবী করেছে।‌  এ নিয়ে জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি’র মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা গেছে।‌ এর প্রতিকার চেয়ে জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষ থেকে জুড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর আবেদন জানানো হয়েছে।‌

চাঁদা দাবী করে কুলাউড়া মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষ থেকে দেয়া চিঠিতে বলা হয়,

জুড়ীর ব্যবসায়ীরা যদি কুলাউড়া উপজেলায় কোনো প্রোগ্রাম করে বা মাইক ও সাউন্ড সিস্টেম ভাড়া দেয় তাহলে কুলাউড়ার রেইট অনুযায়ী ভাড়া দিতে হবে এবং

কুলাউড়া উপজেলায় প্রোগ্রাম করা বাবত তাদের সমিতিকে তিন হাজার টাকা চাঁদা দিতে হবে। কুলাউড়া মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতির এমন অন্যায় আবদারে রীতিমতো অবাক জুড়ীর ব্যবসায়ীরা।‌‌ তারা এর প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে আবেদন দেয়ার পাশাপাশি এই আবেদনের অনূলিপি জুড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ, জায়ফরনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, পশ্চিমজুড়ী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, জুড়ী কামিনীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ কমিটি, ভবানীগঞ্জবাজার ব্যবসায়ী কমিটির কাছে দেয়া হয়েছে।

জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি’র সভাপতি মোঃ খুরশিদ আলম বলেন, জুড়ী বাজারে দীর্ঘদিন থেকে অনেকেই মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসার সাথে জড়িত। আমরা জুড়ী উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলসহ পার্শ্ববর্তী কুলাউড়া, বড়লেখা উপজেলা, মৌলভীবাজার জেলা এমনকি সিলেট বিভাগের অনেক স্থানে মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ভাড়া দিয়ে আসছি।  কখনো কোথাও কেউই আমাদের কাছে এমন চাঁদা দাবি করেনি। ‌কিন্ত কুলাউড়া সমিতির এমন আচরণে আমরা হতবাক হয়েছি । আমরা এর প্রতিকার চাই।

জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি’র সাধারণ সম্পাদক মোঃ মনির হোসেন বলেন, বাংলাদেশ সাউন্ড সিস্টেম এসোসিয়েশন আইনে এই ধরনের কোন বিধান নেই যে অন্য উপজেলায় গিয়ে প্রোগ্রাম করলে সে উপজেলার সমিতিকে চাঁদা দিতে হবে। এটা রীতিমতো অন্যায়। ‌ পার্শ্ববর্তী অন্যান্য উপজেলা থেকেও অনেক ব্যবসায়ী আমাদের জুড়ী উপজেলায় প্রোগ্রাম করতে আসেন। এ নিয়ে আমরা কখনো কোন অভিযোগ করিনি বা কোনো চাঁদা দাবী করিনি। তিনি বলেন, কিছুদিন পূর্বে আমাদের উপজেলার এক ব্যবসায়ী কুলাউড়া উপজেলায় প্রোগ্রাম করে ফিরে আসার সময় ওই সমিতির নামে তাঁর নিকট চাঁদা দাবী করা হয়।‌ এই চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানানোর কারণে তাঁর অপারেটর, রিক্সাসহ আটক করা হয়।‌ পরবর্তীতে আমরা বিভিন্ন পর্যায়ে যোগাযোগ করে তাদেরকে ছাড়িয়ে আনি।

জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি’র পক্ষ থেকে বলা হয়, কুলাউড়া সমিতি অবৈধ ও অনিয়মতান্ত্রিকভাবে আমাদের উপর তাদের খবরদারী চাপিয়ে দিতে অবৈধ চাঁদা দাবী করছে। ভবিষ্যতে আমাদের কোন ব্যবসায়ী কুলাউড়ায় কোনো প্রোগ্রামে গেলে তারা হামলা করতে পারে। এ ব্যাপারে তাঁরা প্রশাসন ও পুলিশের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

এ ব্যাপারে বক্তব্য জানতে কুলাউড়া মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো.  তোফায়েলের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ বিষয়ে কথা বলতে চান না বলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। তবে সমিতির সভাপতি সালাহ উদ্দিন আহমেদ টিটু বলেন, পূজার পরে এ বিষয়টি নিয়ে আমরা বসে সিদ্ধান্ত নেবো।‌

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

বর্ণাঢ্য আয়োজনে কলসকাঠী তে ঈদ পুনর্মিলনী উদযাপিত

কুলাউড়া মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম সমিতির অবৈধ চাঁদা দাবী

আপডেট সময় : ০৪:১৯:৪৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৩ অক্টোবর ২০২৩

মোঃ জাকির হোসেন স্টাফ রিপোর্টার:- জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি’র কাছে অবৈধ ও অনৈতিক ভাবে চাঁদা দাবী করেছে কুলাউড়া মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি। গত ১১ অক্টোবর কুলাউড়া উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি নামের একটি সমিতি, জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি’র কাছে চিঠি দিয়ে প্রোগ্রাম প্রতি তিন হাজার টাকা চাঁদা দাবী করেছে।‌  এ নিয়ে জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি’র মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা গেছে।‌ এর প্রতিকার চেয়ে জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষ থেকে জুড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর আবেদন জানানো হয়েছে।‌

চাঁদা দাবী করে কুলাউড়া মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষ থেকে দেয়া চিঠিতে বলা হয়,

জুড়ীর ব্যবসায়ীরা যদি কুলাউড়া উপজেলায় কোনো প্রোগ্রাম করে বা মাইক ও সাউন্ড সিস্টেম ভাড়া দেয় তাহলে কুলাউড়ার রেইট অনুযায়ী ভাড়া দিতে হবে এবং

কুলাউড়া উপজেলায় প্রোগ্রাম করা বাবত তাদের সমিতিকে তিন হাজার টাকা চাঁদা দিতে হবে। কুলাউড়া মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতির এমন অন্যায় আবদারে রীতিমতো অবাক জুড়ীর ব্যবসায়ীরা।‌‌ তারা এর প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে আবেদন দেয়ার পাশাপাশি এই আবেদনের অনূলিপি জুড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ, জায়ফরনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, পশ্চিমজুড়ী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, জুড়ী কামিনীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ কমিটি, ভবানীগঞ্জবাজার ব্যবসায়ী কমিটির কাছে দেয়া হয়েছে।

জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি’র সভাপতি মোঃ খুরশিদ আলম বলেন, জুড়ী বাজারে দীর্ঘদিন থেকে অনেকেই মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসার সাথে জড়িত। আমরা জুড়ী উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলসহ পার্শ্ববর্তী কুলাউড়া, বড়লেখা উপজেলা, মৌলভীবাজার জেলা এমনকি সিলেট বিভাগের অনেক স্থানে মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ভাড়া দিয়ে আসছি।  কখনো কোথাও কেউই আমাদের কাছে এমন চাঁদা দাবি করেনি। ‌কিন্ত কুলাউড়া সমিতির এমন আচরণে আমরা হতবাক হয়েছি । আমরা এর প্রতিকার চাই।

জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি’র সাধারণ সম্পাদক মোঃ মনির হোসেন বলেন, বাংলাদেশ সাউন্ড সিস্টেম এসোসিয়েশন আইনে এই ধরনের কোন বিধান নেই যে অন্য উপজেলায় গিয়ে প্রোগ্রাম করলে সে উপজেলার সমিতিকে চাঁদা দিতে হবে। এটা রীতিমতো অন্যায়। ‌ পার্শ্ববর্তী অন্যান্য উপজেলা থেকেও অনেক ব্যবসায়ী আমাদের জুড়ী উপজেলায় প্রোগ্রাম করতে আসেন। এ নিয়ে আমরা কখনো কোন অভিযোগ করিনি বা কোনো চাঁদা দাবী করিনি। তিনি বলেন, কিছুদিন পূর্বে আমাদের উপজেলার এক ব্যবসায়ী কুলাউড়া উপজেলায় প্রোগ্রাম করে ফিরে আসার সময় ওই সমিতির নামে তাঁর নিকট চাঁদা দাবী করা হয়।‌ এই চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানানোর কারণে তাঁর অপারেটর, রিক্সাসহ আটক করা হয়।‌ পরবর্তীতে আমরা বিভিন্ন পর্যায়ে যোগাযোগ করে তাদেরকে ছাড়িয়ে আনি।

জুড়ী উপজেলা মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতি’র পক্ষ থেকে বলা হয়, কুলাউড়া সমিতি অবৈধ ও অনিয়মতান্ত্রিকভাবে আমাদের উপর তাদের খবরদারী চাপিয়ে দিতে অবৈধ চাঁদা দাবী করছে। ভবিষ্যতে আমাদের কোন ব্যবসায়ী কুলাউড়ায় কোনো প্রোগ্রামে গেলে তারা হামলা করতে পারে। এ ব্যাপারে তাঁরা প্রশাসন ও পুলিশের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

এ ব্যাপারে বক্তব্য জানতে কুলাউড়া মাইক এন্ড সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো.  তোফায়েলের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ বিষয়ে কথা বলতে চান না বলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। তবে সমিতির সভাপতি সালাহ উদ্দিন আহমেদ টিটু বলেন, পূজার পরে এ বিষয়টি নিয়ে আমরা বসে সিদ্ধান্ত নেবো।‌