ঢাকা ০৮:২৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
জাতীয় সংবাদ পরিষদের সভাপতি নূর হাকিম সাধারণ সম্পাদক ইদ্রিস আলী নান্টু পূর্ব শত্রুতার জের ধরে নিজের ঘরে নিজে আগুন দিয়ে মিথ্যা মামলায় হয়রানি গ্রামবাসীদের ফাঁসানোর চেষ্টা! সেুঁজুতির মনোনয়ন নিয়ে সাতক্ষীরায় তোলপাড়, শশুর রাজাকার! ভাসুর বিএনপি নেতা সাতকানিয়া ছদাহা জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করে অবৈধভাবে মাটি কাটায় ৫০ (হাজার) টাকা জরিমানা বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদের ববি শাখার নেতৃত্বে ইব্রাহিম-শান্ত প্রতারণার মামলায় যুব-মহিলালীগ নেত্রী ও তার স্বামী রিমান্ডে শাহজালালে যৌথ অভিযানে ২ কেজি ১০৪ গ্রাম স্বর্ণ উদ্ধার, গ্রেফতার ৪ যাত্রী গোসাইরহাট উপজেলা পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী জাতীয় যুব কাউন্সিলের সভাপতি:মাসুদ আলম ইয়াংছা উচ্চ বিদ্যালয়ে মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত রামেবিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন

চাঞ্চল্যকর ক্লুলেস ডাকাতি মামলার রহস্য উদঘাটনে গ্রেফতার ৪

  • মাসুদ রানা
  • আপডেট সময় : ০১:০১:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ মে ২০২৩
  • ২৭৭৪ বার পড়া হয়েছে

গত ১২ মে ২০২৩ ইং ভোর রাত অনুমান ০৩.৪৫ ঘটিকায় স্পেশাল ব্রাঞ্চ, মালিবাগ, ঢাকায় কর্মরত নারী কনস্টেবল/৭৭০ নার্গিস আক্তার (৩৩) রিক্সা যোগে ভিভিআইপি ডিউটির উদ্দেশ্যে অফিস যাওয়ার পথে পল্টন মডেল থানাধীন রাজারবাগ বাংলাদেশ পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের সামনের মোড়ে ভোর রাত অনুমান ০৪.ঘটিকায় পৌছামাত্র পিছন হতে আসা একটি হলুদ ও নীল রংয়ের পিকআপ গাড়ী তার রিক্সাকে চাপ দেয় এবং উক্ত পিকআপ গাড়ীর পিছন হতে ২(দুই) জন অজ্ঞাতনামা লোক নেমে একজন তার হাত ধরে এবং অপর জন গলায় চাকু ধরে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে তার গলায় থাকা স্বর্ণের একটি চেইন, ওজন অনুমান ১০ আনা, মূল্য অনুমান ৬০,০০০/- (ষাট হাজার) টাকা এবং হাতে থাকা ছোট ভ্যানেটি ব্যাগটি ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

উক্ত ব্যাগের ভিতরে নগদ ৫,০০০/-টাকা, একটি শাওমী নোট ৮ মোবাইল ফোন, মূল্য অনুমান ৪৫,০০০/-টাকা, একটি বাটন স্যামসাং মোবাইল ফোন, মূল্য অনুমান ৩,০০০/-টাকা, এসবির আইডি কার্ড জোর পূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে পিকআপ গাড়ীটি দ্রুত ডান দিকে মোড় নিয়ে শাহজাহানপুরের দিকে চলে যায়। বাদীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে পল্টন মডেল থানা মামলা রুজু করা হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার হায়াতুল ইসলাম খান এর দিক নির্দেশনায় অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার (মতিঝিল জোন) মোঃ রওশানুল হক সৈকত এর দুরদর্শি নেতৃত্বে পল্টন মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ সালাউদ্দিন মিয়ার সহযোগিতায় পল্টন মডেল থানার একটি বিশেষ টিম ঢাকা শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে গত ১৫ মে -২৩ ইং রাতে মহাখালী হতে তাদের গ্রেফতার করা হয়। মহাখালী হতে ঘটনায় সাথে জড়িত থাকা ডাকাত চক্রের চারসদস্যকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ হতে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত দেশীয় বিভিন্ন অস্ত্র-শস্ত্রসহ, পিকআপ ও লুন্ঠিত টাকা এবং ৪ টি স্মার্ট মোবাইল, ৩ টি বাটন মোবাইল উদ্ধারসহ ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত থাকা ডাকাত দলের ৪(চার) সদস্যকে গ্রেফতার করেছে।গ্রেফতারকৃতরা হলেন সোহেল (৩০) আক্তার সোহরাব (৩২) আবির হোসেন রাসেল (২৫)মোঃ রনির (২৮)।

দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার হায়াতুল ইসলাম খান বলেন গ্রেফতারকৃত ডাকাত দলের সদস্যরা পিকআপ গাড়িটি গত ৫-৬ দিন পূর্বে ছিনতাই করে নিজেদের দখলে নিয়েছে। উক্ত ছিনতাইকৃত পিকআপ ভ্যান গাড়ি নিয়ে তারা গত ৫/৬ দিন ধরে রাতের বেলায় চলাচলরত পথচারী/রিক্সার যাত্রীদের সুবিধাজনক স্থানে গতিরোধ করে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ডাকাতি করে আসছে। তারা আরও জানায় যে, গত ১২ মে ২০২৩খ্রিঃ তারিখ মোহাম্মদপুর থানা এলাকায় একটি এবং গত ১৩ মে ২০২৩খ্রিঃ তারিখ তেজগাঁও ও বনানী থানা এলাকায় অনুরুপ দুইটি ডাকাতির ঘটনা সংঘটিত করেছে।

গ্রেফতারকৃত সোহেলের বিরুদ্ধে ২ টি তারমধ্য ডাকাতি ১ টি দস্যুতা-১টি।আক্তার সোহরাবের বিরুদ্ধে ৬ টি মামলা(তারমধ্যেড ডাকাতি ৪ টি, মাদকসহ অন্যান্য-২ টি। আমির হোসেন রাসেলের বিরুদ্ধে ৫ টি মামলা (তন্মধ্যে ডাকাতি ১ টি দস্যুতা- ১ টি মাদকসহ অন্যান্য-৩ টি।মোঃ রনির বিরুদ্ধে ৮ টি মামলা (তন্মধ্যে ডাকাতি ১ টি দস্যুতা-২ টি মাদকসহ অন্যান্য-৫ টি মামলা রয়েছে।ধৃত আসামীদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

জাতীয় সংবাদ পরিষদের সভাপতি নূর হাকিম সাধারণ সম্পাদক ইদ্রিস আলী নান্টু

চাঞ্চল্যকর ক্লুলেস ডাকাতি মামলার রহস্য উদঘাটনে গ্রেফতার ৪

আপডেট সময় : ০১:০১:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ মে ২০২৩

গত ১২ মে ২০২৩ ইং ভোর রাত অনুমান ০৩.৪৫ ঘটিকায় স্পেশাল ব্রাঞ্চ, মালিবাগ, ঢাকায় কর্মরত নারী কনস্টেবল/৭৭০ নার্গিস আক্তার (৩৩) রিক্সা যোগে ভিভিআইপি ডিউটির উদ্দেশ্যে অফিস যাওয়ার পথে পল্টন মডেল থানাধীন রাজারবাগ বাংলাদেশ পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের সামনের মোড়ে ভোর রাত অনুমান ০৪.ঘটিকায় পৌছামাত্র পিছন হতে আসা একটি হলুদ ও নীল রংয়ের পিকআপ গাড়ী তার রিক্সাকে চাপ দেয় এবং উক্ত পিকআপ গাড়ীর পিছন হতে ২(দুই) জন অজ্ঞাতনামা লোক নেমে একজন তার হাত ধরে এবং অপর জন গলায় চাকু ধরে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে তার গলায় থাকা স্বর্ণের একটি চেইন, ওজন অনুমান ১০ আনা, মূল্য অনুমান ৬০,০০০/- (ষাট হাজার) টাকা এবং হাতে থাকা ছোট ভ্যানেটি ব্যাগটি ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

উক্ত ব্যাগের ভিতরে নগদ ৫,০০০/-টাকা, একটি শাওমী নোট ৮ মোবাইল ফোন, মূল্য অনুমান ৪৫,০০০/-টাকা, একটি বাটন স্যামসাং মোবাইল ফোন, মূল্য অনুমান ৩,০০০/-টাকা, এসবির আইডি কার্ড জোর পূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে পিকআপ গাড়ীটি দ্রুত ডান দিকে মোড় নিয়ে শাহজাহানপুরের দিকে চলে যায়। বাদীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে পল্টন মডেল থানা মামলা রুজু করা হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার হায়াতুল ইসলাম খান এর দিক নির্দেশনায় অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার (মতিঝিল জোন) মোঃ রওশানুল হক সৈকত এর দুরদর্শি নেতৃত্বে পল্টন মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ সালাউদ্দিন মিয়ার সহযোগিতায় পল্টন মডেল থানার একটি বিশেষ টিম ঢাকা শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে গত ১৫ মে -২৩ ইং রাতে মহাখালী হতে তাদের গ্রেফতার করা হয়। মহাখালী হতে ঘটনায় সাথে জড়িত থাকা ডাকাত চক্রের চারসদস্যকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ হতে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত দেশীয় বিভিন্ন অস্ত্র-শস্ত্রসহ, পিকআপ ও লুন্ঠিত টাকা এবং ৪ টি স্মার্ট মোবাইল, ৩ টি বাটন মোবাইল উদ্ধারসহ ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত থাকা ডাকাত দলের ৪(চার) সদস্যকে গ্রেফতার করেছে।গ্রেফতারকৃতরা হলেন সোহেল (৩০) আক্তার সোহরাব (৩২) আবির হোসেন রাসেল (২৫)মোঃ রনির (২৮)।

দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার হায়াতুল ইসলাম খান বলেন গ্রেফতারকৃত ডাকাত দলের সদস্যরা পিকআপ গাড়িটি গত ৫-৬ দিন পূর্বে ছিনতাই করে নিজেদের দখলে নিয়েছে। উক্ত ছিনতাইকৃত পিকআপ ভ্যান গাড়ি নিয়ে তারা গত ৫/৬ দিন ধরে রাতের বেলায় চলাচলরত পথচারী/রিক্সার যাত্রীদের সুবিধাজনক স্থানে গতিরোধ করে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ডাকাতি করে আসছে। তারা আরও জানায় যে, গত ১২ মে ২০২৩খ্রিঃ তারিখ মোহাম্মদপুর থানা এলাকায় একটি এবং গত ১৩ মে ২০২৩খ্রিঃ তারিখ তেজগাঁও ও বনানী থানা এলাকায় অনুরুপ দুইটি ডাকাতির ঘটনা সংঘটিত করেছে।

গ্রেফতারকৃত সোহেলের বিরুদ্ধে ২ টি তারমধ্য ডাকাতি ১ টি দস্যুতা-১টি।আক্তার সোহরাবের বিরুদ্ধে ৬ টি মামলা(তারমধ্যেড ডাকাতি ৪ টি, মাদকসহ অন্যান্য-২ টি। আমির হোসেন রাসেলের বিরুদ্ধে ৫ টি মামলা (তন্মধ্যে ডাকাতি ১ টি দস্যুতা- ১ টি মাদকসহ অন্যান্য-৩ টি।মোঃ রনির বিরুদ্ধে ৮ টি মামলা (তন্মধ্যে ডাকাতি ১ টি দস্যুতা-২ টি মাদকসহ অন্যান্য-৫ টি মামলা রয়েছে।ধৃত আসামীদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।