ঢাকা ০৬:৩৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
চট্টগ্রামে পাহাড়িদের বৈসাবি উৎসব উচ্চ ডিগ্রি অর্জনে যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনা করছেন এম ইউ অ্যান্থনি হরিপুরে প্রকৃতি কে সভামন্ডিত করেছে হলুদ বরণের সোনালু ফুল নির্বাচনী আচারন লঙ্ঘন করায় চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থককে জরিমানা ডিজিটাল কারেন্সির মাধ্যমে বিদেশে অর্থ পাচার রোধে উচ্চতর প্রশিক্ষণের বিকল্প নাই- সিআইডি প্রধান রাজশাহীতে বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস পালিত বাড্ডায় শিশু অপহরণ ও ক্রয় বিক্রয় চক্রের মূলহোতা গ্রেফতার, শিশু মরিয়ম উদ্ধার ৮ মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও নিয়ে চিন্তিত সীমা সরকার দেশজুড়ে তোলপাড়! বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটি জেলা কমিটি অনুমোদন সভাপতি কামরুজ্জামান সম্পাদক বাদশা এটিএন বাংলার চায়ের চুমুকে সংগঠক ও বিনোদন সাংবাদিক আবুল হোসেন মজুমদার

চাঞ্চল্যকর খোরশেদ হত্যার মামলা ও বিস্ফোরক মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী’কে আটক করেছে র‍্যাব-৩

  • মাসুদ রানা
  • আপডেট সময় : ০৪:২১:২৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ এপ্রিল ২০২৩
  • ২২১৭ বার পড়া হয়েছে

মাসুদ রানাঃ র‍্যাব-৩ সুনির্দিষ্ট গোয়েন্দা সংবাদের ভিত্তিতে
লক্ষ্মীপুর জেলার সদর থানাধীন বশিকপুর এলাকায় চাঞ্চল্যকর খোরশেদ হত্যার ঘটনায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি মোঃ রিপন হোসেন ভূঁইয়া (৩৫)’কে অদ্য ১ এপ্রিল ২৩ ইং র‍্যাব-৩ এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল গভীর রাতে রাজধানীর পল্লবী থানা এলাকা অভিযান পরিচালনা করে গ্রেফতার করে।

র‍্যাব-৩ এর অন্য এক অভিযানে কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ থানার বিস্ফোরক মামলার ঘটনায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি রাজন মিয়া (৪১)’কে ও বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে অদ্য ১ এপ্রিল-২৩ ইং রাজধানীর খিলগাঁও এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন র‍্যাব-৩ এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল আরিফ মহিউদ্দিন আহমেদ।

তিনি জানান,গ্রেফতারকৃত আসামী রিপন হোসেন ভূইয়া তার কৃতকর্মের বিষয়টি স্বীকার করে। সে এলাকায় আদিপত্য বিস্তার করে চোরি, ডাকাতি, খুন, হত্যা, গুমসহ, ভূমি দখল, চাঁদাবাজি, টেন্ডার বাজিসহ বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত থেকে উক্ত কর্মকান্ড পরিচালনা করত। তার অপকর্মে এলাকার সাধারণ মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাপনে বাঁধাগ্রস্ত হয়ে পরে। এক পর্যায়ে খোরশেদ হত্যার ঘটনায় ২০১৪ সালে লক্ষীপুর থানায় তার নামে মামলা হয়। পরবর্তীতে ২০২২ সালে সন্দেহাতীতভাবে প্রমানীত হওয়ায় তার নামে গ্রেফতারী আদেশ হলে সে দেশের বিভিন্ন এলাকায় স্থান পরিবর্তন করে পলাতক জীবন যাপন করে নিজেকে আত্নগোপনে করে আসছে।

অধিনায়ক আরো জানান গ্রফতারকৃত আসামী রাজন মিয়া তার কৃতকর্মের বিষয়টি স্বীকার করে। সে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করে সন্ত্রাসী কার্যক্রম, ডাকাতি, খুন, হত্যা, গুম, ভূমি দখল, চাঁদাবাজি, টেন্ডার বাজিসহ বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত থাকতো। তার অপকর্মে এলাকার সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে ২০০৬ সালে করিমগঞ্জ থানায় বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করে। পরবর্তীতে ২০১৪ সালে সন্দেহাতীতভাবে প্রমানিত হওয়ায় আদালত কর্তৃক যাবজ্জীবন সাজা প্রদান করা হলে সে দেশের বিভিন্ন এলাকায় স্থান পরিবর্তন করে পলাতক জীবন যাপন করে নিজেকে আত্নগোপনে করে আসছে।ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে বলে জানান ফারজানা হক সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার স্টাফ অফিসার (মিডিয়া) র‍্যাব-৩।

ট্যাগস :

চট্টগ্রামে পাহাড়িদের বৈসাবি উৎসব

চাঞ্চল্যকর খোরশেদ হত্যার মামলা ও বিস্ফোরক মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী’কে আটক করেছে র‍্যাব-৩

আপডেট সময় : ০৪:২১:২৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ এপ্রিল ২০২৩

মাসুদ রানাঃ র‍্যাব-৩ সুনির্দিষ্ট গোয়েন্দা সংবাদের ভিত্তিতে
লক্ষ্মীপুর জেলার সদর থানাধীন বশিকপুর এলাকায় চাঞ্চল্যকর খোরশেদ হত্যার ঘটনায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি মোঃ রিপন হোসেন ভূঁইয়া (৩৫)’কে অদ্য ১ এপ্রিল ২৩ ইং র‍্যাব-৩ এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল গভীর রাতে রাজধানীর পল্লবী থানা এলাকা অভিযান পরিচালনা করে গ্রেফতার করে।

র‍্যাব-৩ এর অন্য এক অভিযানে কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ থানার বিস্ফোরক মামলার ঘটনায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি রাজন মিয়া (৪১)’কে ও বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে অদ্য ১ এপ্রিল-২৩ ইং রাজধানীর খিলগাঁও এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন র‍্যাব-৩ এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল আরিফ মহিউদ্দিন আহমেদ।

তিনি জানান,গ্রেফতারকৃত আসামী রিপন হোসেন ভূইয়া তার কৃতকর্মের বিষয়টি স্বীকার করে। সে এলাকায় আদিপত্য বিস্তার করে চোরি, ডাকাতি, খুন, হত্যা, গুমসহ, ভূমি দখল, চাঁদাবাজি, টেন্ডার বাজিসহ বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত থেকে উক্ত কর্মকান্ড পরিচালনা করত। তার অপকর্মে এলাকার সাধারণ মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাপনে বাঁধাগ্রস্ত হয়ে পরে। এক পর্যায়ে খোরশেদ হত্যার ঘটনায় ২০১৪ সালে লক্ষীপুর থানায় তার নামে মামলা হয়। পরবর্তীতে ২০২২ সালে সন্দেহাতীতভাবে প্রমানীত হওয়ায় তার নামে গ্রেফতারী আদেশ হলে সে দেশের বিভিন্ন এলাকায় স্থান পরিবর্তন করে পলাতক জীবন যাপন করে নিজেকে আত্নগোপনে করে আসছে।

অধিনায়ক আরো জানান গ্রফতারকৃত আসামী রাজন মিয়া তার কৃতকর্মের বিষয়টি স্বীকার করে। সে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করে সন্ত্রাসী কার্যক্রম, ডাকাতি, খুন, হত্যা, গুম, ভূমি দখল, চাঁদাবাজি, টেন্ডার বাজিসহ বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত থাকতো। তার অপকর্মে এলাকার সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে ২০০৬ সালে করিমগঞ্জ থানায় বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করে। পরবর্তীতে ২০১৪ সালে সন্দেহাতীতভাবে প্রমানিত হওয়ায় আদালত কর্তৃক যাবজ্জীবন সাজা প্রদান করা হলে সে দেশের বিভিন্ন এলাকায় স্থান পরিবর্তন করে পলাতক জীবন যাপন করে নিজেকে আত্নগোপনে করে আসছে।ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে বলে জানান ফারজানা হক সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার স্টাফ অফিসার (মিডিয়া) র‍্যাব-৩।