ঢাকা ০১:১৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদের ববি শাখার নেতৃত্বে ইব্রাহিম-শান্ত প্রতারণার মামলায় যুব-মহিলালীগ নেত্রী ও তার স্বামী রিমান্ডে শাহজালালে যৌথ অভিযানে ২ কেজি ১০৪ গ্রাম স্বর্ণ উদ্ধার, গ্রেফতার ৪ যাত্রী গোসাইরহাট উপজেলা পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী জাতীয় যুব কাউন্সিলের সভাপতি:মাসুদ আলম ইয়াংছা উচ্চ বিদ্যালয়ে মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত রামেবিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন যুবলীগ নেতার মামলায় যুব-মহিলালীগ নেত্রী গ্রেফতার! ৪ মামলায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি’কে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করেছে দাগনভূঁঞা থানা পুলিশ দূর্নীতিমুক্ত রিহ‍্যাব গড়তে চান আলিমুল্লাহ খোকন টিলাগাঁও আজিজুন নেছা উচ্চ বিদ্যালয়ের তৃতীয় বারের মত সভাপতি নির্বাচিত শামিম আহমদ

দক্ষিণ সাদিষের কৃষিজমি কর্তন ভূমিদস্যু মূল হোতা ধরা ছোয়ার বাইরে মিথ্যা মামলার আসামী সাধারণ মানুষ!

  • আপডেট সময় : ০১:৪১:৩৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • ২১১৭ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এদেশে আইন পাশ করিয়েছেন নদী তীরবর্তী কৃষিজমি কর্তন করা যাবে না, সেখানে বাকেরগঞ্জ থানার কলসকাঠী ইউনিয়নের দক্ষিণ সাদিশ পাণ্ডব নদী তীরবর্তী কৃষি জমি ১৫/২০ ফুট নীচ থেকে ভেকু দিয়ে মাটি উত্তোলন করে ভূমিদস্যুরা ইট ভাটায় বিক্রি করছে।

এটি নিয়ন্ত্রণ করছে একটি প্রভাবশালী সিন্ডিকেট। দীর্ঘদিন যাবত চিহ্নিত ভূমিদস্যুরা এই গ্রামের মাটি কাটছে। এর প্রতিবাদে গ্রামবাসি একত্রিত হয়ে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করে যা সময় টিভি, একাত্তর টিভি, মাইটিভিসহ বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়েছে। এই সব মিডিয়ায় বিভিন্ন সময় ভূমিদস্যু জনপ্রতিনিধিসহ চিহ্নিত চোর চক্রের কীছু নাম গ্রামবাসি প্রকাশ করে। ইতিপূর্বে প্রশাসন লোক দেখানো ২/১ টি অভিযান পরিচালনা করে।

পরবর্তীতে অভিযান পরিচালনাকারীরাই ম্যানেজ হয়ে যায় ফলশ্রুতিতে আবার শুরু হয় মাটি-কাটা। এভাবে চলছে চোর পুলিশ খেলা। সদ্য জাতীয় নির্বাচন শেষে সিন্ডিকেট আবার সক্রিয় হয়ে নবোদ্যমে একাধিক ভেকু দিয়ে মাটি কাটা শুরু করে। গ্রামবাসি ফেসবুক সহ বিভিন্ন বিভিন্ন পত্রিকার মাধ্যমে প্রতিবাদ করলে পটুয়াখালীর দুমকী পুলিশ প্রশাসন দক্ষিণ সাদিশ গ্রামের পূর্বপাশের পাণ্ডব নদী থেকে একটি ভেকু ও দুইজন চালককে মাটি কাটার সময় আটক করে। ঘটনাস্থল বাকেরগঞ্জ থানার আওতাধীন হওয়ায় দুমকী থানার এসআই শাহীন হোসেন, নিরস্ত্র, বিপি-৮৭০৭১১১২২১, একটি মামলা দায়ের করে আসামীদ্বয়কে বাকেরগঞ্জ থানায় সোপর্দ করে যার মামলা নং- জিআর ৪২/২০২৪ তারিখঃ ২৮/০১/২০২৪। ঘটনাস্থলে ধৃত দুই জনসহ আসামী করা হয় মোট ১০ জন কিন্তু বাদ দেয়া হয় ভূমিদস্যু মূল হোতাদের। এই দশ জনের মধ্য ৫-১০ পর্যন্ত ক্রমিক নাম্বার আসামীরা মাটি কাটার বিপক্ষে নদী তীরবর্তী বাসিন্দা যারা কিছুদিনের মধ্যেই এভাবে কাটতে থাকলে বাড়ি-ঘর খোয়াবে। একদিকে বাড়ি-ঘর হারানোর পথে অন্যদিকে মামলার আসামি। এ ব্যাপারে গ্রামবাসি বাকেরগঞ্জ উপজেলার ইউএনও, ওসি এবং এমপি মহোদয়কে নামসহ বিস্তারিত লিখিতভাবে জানিয়েছেন।

মাটি কাটার বিপক্ষে অবস্থান কারী নদীতীরবর্তী দক্ষিণ সাদিশ গ্রামের বাসিন্দারা হ’লো শাহ আলম হাওলাদার, তুহিন হাওলাদার , আনোয়ার হাওলাদার, নয়ন হাওলাদার , আতাউল্লাহ খান ও হালিম খান।

দুমকী থানার তদন্তকারী কর্মকতা কীসের ভিত্তিতে মাটি কাটার বিপক্ষে অবস্থানকারীদের মামলার আসামী করলেন তা এলাকাবাসীর বোধগম্য নয়। এইসব আসামীরা বিভিন্ন সময় মাটি কাটার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে যার প্রমাণ, ভিডিও ফুটেজ আছে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদের ববি শাখার নেতৃত্বে ইব্রাহিম-শান্ত

দক্ষিণ সাদিষের কৃষিজমি কর্তন ভূমিদস্যু মূল হোতা ধরা ছোয়ার বাইরে মিথ্যা মামলার আসামী সাধারণ মানুষ!

আপডেট সময় : ০১:৪১:৩৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এদেশে আইন পাশ করিয়েছেন নদী তীরবর্তী কৃষিজমি কর্তন করা যাবে না, সেখানে বাকেরগঞ্জ থানার কলসকাঠী ইউনিয়নের দক্ষিণ সাদিশ পাণ্ডব নদী তীরবর্তী কৃষি জমি ১৫/২০ ফুট নীচ থেকে ভেকু দিয়ে মাটি উত্তোলন করে ভূমিদস্যুরা ইট ভাটায় বিক্রি করছে।

এটি নিয়ন্ত্রণ করছে একটি প্রভাবশালী সিন্ডিকেট। দীর্ঘদিন যাবত চিহ্নিত ভূমিদস্যুরা এই গ্রামের মাটি কাটছে। এর প্রতিবাদে গ্রামবাসি একত্রিত হয়ে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করে যা সময় টিভি, একাত্তর টিভি, মাইটিভিসহ বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়েছে। এই সব মিডিয়ায় বিভিন্ন সময় ভূমিদস্যু জনপ্রতিনিধিসহ চিহ্নিত চোর চক্রের কীছু নাম গ্রামবাসি প্রকাশ করে। ইতিপূর্বে প্রশাসন লোক দেখানো ২/১ টি অভিযান পরিচালনা করে।

পরবর্তীতে অভিযান পরিচালনাকারীরাই ম্যানেজ হয়ে যায় ফলশ্রুতিতে আবার শুরু হয় মাটি-কাটা। এভাবে চলছে চোর পুলিশ খেলা। সদ্য জাতীয় নির্বাচন শেষে সিন্ডিকেট আবার সক্রিয় হয়ে নবোদ্যমে একাধিক ভেকু দিয়ে মাটি কাটা শুরু করে। গ্রামবাসি ফেসবুক সহ বিভিন্ন বিভিন্ন পত্রিকার মাধ্যমে প্রতিবাদ করলে পটুয়াখালীর দুমকী পুলিশ প্রশাসন দক্ষিণ সাদিশ গ্রামের পূর্বপাশের পাণ্ডব নদী থেকে একটি ভেকু ও দুইজন চালককে মাটি কাটার সময় আটক করে। ঘটনাস্থল বাকেরগঞ্জ থানার আওতাধীন হওয়ায় দুমকী থানার এসআই শাহীন হোসেন, নিরস্ত্র, বিপি-৮৭০৭১১১২২১, একটি মামলা দায়ের করে আসামীদ্বয়কে বাকেরগঞ্জ থানায় সোপর্দ করে যার মামলা নং- জিআর ৪২/২০২৪ তারিখঃ ২৮/০১/২০২৪। ঘটনাস্থলে ধৃত দুই জনসহ আসামী করা হয় মোট ১০ জন কিন্তু বাদ দেয়া হয় ভূমিদস্যু মূল হোতাদের। এই দশ জনের মধ্য ৫-১০ পর্যন্ত ক্রমিক নাম্বার আসামীরা মাটি কাটার বিপক্ষে নদী তীরবর্তী বাসিন্দা যারা কিছুদিনের মধ্যেই এভাবে কাটতে থাকলে বাড়ি-ঘর খোয়াবে। একদিকে বাড়ি-ঘর হারানোর পথে অন্যদিকে মামলার আসামি। এ ব্যাপারে গ্রামবাসি বাকেরগঞ্জ উপজেলার ইউএনও, ওসি এবং এমপি মহোদয়কে নামসহ বিস্তারিত লিখিতভাবে জানিয়েছেন।

মাটি কাটার বিপক্ষে অবস্থান কারী নদীতীরবর্তী দক্ষিণ সাদিশ গ্রামের বাসিন্দারা হ’লো শাহ আলম হাওলাদার, তুহিন হাওলাদার , আনোয়ার হাওলাদার, নয়ন হাওলাদার , আতাউল্লাহ খান ও হালিম খান।

দুমকী থানার তদন্তকারী কর্মকতা কীসের ভিত্তিতে মাটি কাটার বিপক্ষে অবস্থানকারীদের মামলার আসামী করলেন তা এলাকাবাসীর বোধগম্য নয়। এইসব আসামীরা বিভিন্ন সময় মাটি কাটার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে যার প্রমাণ, ভিডিও ফুটেজ আছে।