ঢাকা ০৭:৫৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
চট্টগ্রামে পাহাড়িদের বৈসাবি উৎসব উচ্চ ডিগ্রি অর্জনে যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনা করছেন এম ইউ অ্যান্থনি হরিপুরে প্রকৃতি কে সভামন্ডিত করেছে হলুদ বরণের সোনালু ফুল নির্বাচনী আচারন লঙ্ঘন করায় চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থককে জরিমানা ডিজিটাল কারেন্সির মাধ্যমে বিদেশে অর্থ পাচার রোধে উচ্চতর প্রশিক্ষণের বিকল্প নাই- সিআইডি প্রধান রাজশাহীতে বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস পালিত বাড্ডায় শিশু অপহরণ ও ক্রয় বিক্রয় চক্রের মূলহোতা গ্রেফতার, শিশু মরিয়ম উদ্ধার ৮ মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও নিয়ে চিন্তিত সীমা সরকার দেশজুড়ে তোলপাড়! বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটি জেলা কমিটি অনুমোদন সভাপতি কামরুজ্জামান সম্পাদক বাদশা এটিএন বাংলার চায়ের চুমুকে সংগঠক ও বিনোদন সাংবাদিক আবুল হোসেন মজুমদার

রেলের উন্নয়ন ও যাত্রীসেবায় বিশেষ সম্মাননা পেয়েছেন স্টেশন মাস্টার জাফর

  • মাসুদ রানা
  • আপডেট সময় : ০৯:০১:২৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • ২৪৭৭ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশ রেলওয়ের উন্নয়ন ও যাত্রীসেবায় বিশেষ অবদান রাখায় “গ” ক্যাটাগরিতে বিশেষ সম্মাননার পেয়েছেন চট্টগ্রামের রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. জাফর আলম।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন চট্টগ্রামের রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. জাফর আলম। তিনি বলেন, রেল মুলত সরকারের একটি সেবামুলক প্রতিষ্ঠান। আমরা আমাদের সাধ্যমত সেবা দিয়ে যাচ্ছি। রেলকে আরো উন্নয়মুখী ও সেবাকে আরো বেগবান করতে কিছু সৎ ও নিষ্ঠাবান কর্মকর্তাকে সততার স্বীকৃতি স্বরূপ পুরস্কার দিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। এই পুরস্কারের তালিকায় নিজেকে দেখে আমি গর্বিত। তবে রেলে আরো অনেক সৎ ও পরিশ্রমি কর্মকর্তা রয়েছে। মন্ত্রী মহোদয়ের বিচক্ষণ সিদ্ধান্ত ও তাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে রেল বর্তমানে অনেক উন্নত হয়েছে। আশা করছি সামনে এর সুফল ভোগ করবে জনসাধারণ।

৭ ফেব্রয়ারী রেল ভবনে রেলপথ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজনের কাছ থেকে বিশেষ সম্মাননা গ্রহন করেন চট্টগ্রামের রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. জাফর আলম।

চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বিভাগের চট্টগ্রাম জেলা শহরে অবস্থিত একটি রেলওয়ে স্টেশন। এই স্টেশন থেকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার লাইন শুরু হয়েছে। এই স্টেশনটি চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন নামেও পরিচিত।

চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন ১৮৯২ সালে ইংল্যান্ডে গঠিত আসাম বেঙ্গল রেলওয়ে কোম্পানি এদেশে রেলপথ নির্মাণের দায়িত্ব নেয়। ১৮৯৫ সালের ১ জুলাই চট্টগ্রাম থেকে কুমিল্লা ১৫০ কিমি মিটারগেজ লাইন এবং লাকসাম থেকে চাঁদপুর পর্যন্ত ৬৯ কিমি রেললাইন জনসাধারণের জন্য খোলা হয়।[

ট্যাগস :

চট্টগ্রামে পাহাড়িদের বৈসাবি উৎসব

রেলের উন্নয়ন ও যাত্রীসেবায় বিশেষ সম্মাননা পেয়েছেন স্টেশন মাস্টার জাফর

আপডেট সময় : ০৯:০১:২৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

বাংলাদেশ রেলওয়ের উন্নয়ন ও যাত্রীসেবায় বিশেষ অবদান রাখায় “গ” ক্যাটাগরিতে বিশেষ সম্মাননার পেয়েছেন চট্টগ্রামের রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. জাফর আলম।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন চট্টগ্রামের রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. জাফর আলম। তিনি বলেন, রেল মুলত সরকারের একটি সেবামুলক প্রতিষ্ঠান। আমরা আমাদের সাধ্যমত সেবা দিয়ে যাচ্ছি। রেলকে আরো উন্নয়মুখী ও সেবাকে আরো বেগবান করতে কিছু সৎ ও নিষ্ঠাবান কর্মকর্তাকে সততার স্বীকৃতি স্বরূপ পুরস্কার দিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। এই পুরস্কারের তালিকায় নিজেকে দেখে আমি গর্বিত। তবে রেলে আরো অনেক সৎ ও পরিশ্রমি কর্মকর্তা রয়েছে। মন্ত্রী মহোদয়ের বিচক্ষণ সিদ্ধান্ত ও তাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে রেল বর্তমানে অনেক উন্নত হয়েছে। আশা করছি সামনে এর সুফল ভোগ করবে জনসাধারণ।

৭ ফেব্রয়ারী রেল ভবনে রেলপথ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজনের কাছ থেকে বিশেষ সম্মাননা গ্রহন করেন চট্টগ্রামের রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. জাফর আলম।

চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বিভাগের চট্টগ্রাম জেলা শহরে অবস্থিত একটি রেলওয়ে স্টেশন। এই স্টেশন থেকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার লাইন শুরু হয়েছে। এই স্টেশনটি চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন নামেও পরিচিত।

চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন ১৮৯২ সালে ইংল্যান্ডে গঠিত আসাম বেঙ্গল রেলওয়ে কোম্পানি এদেশে রেলপথ নির্মাণের দায়িত্ব নেয়। ১৮৯৫ সালের ১ জুলাই চট্টগ্রাম থেকে কুমিল্লা ১৫০ কিমি মিটারগেজ লাইন এবং লাকসাম থেকে চাঁদপুর পর্যন্ত ৬৯ কিমি রেললাইন জনসাধারণের জন্য খোলা হয়।[