ঢাকা ১১:৩৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদের ববি শাখার নেতৃত্বে ইব্রাহিম-শান্ত প্রতারণার মামলায় যুব-মহিলালীগ নেত্রী ও তার স্বামী রিমান্ডে শাহজালালে যৌথ অভিযানে ২ কেজি ১০৪ গ্রাম স্বর্ণ উদ্ধার, গ্রেফতার ৪ যাত্রী গোসাইরহাট উপজেলা পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী জাতীয় যুব কাউন্সিলের সভাপতি:মাসুদ আলম ইয়াংছা উচ্চ বিদ্যালয়ে মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত রামেবিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন যুবলীগ নেতার মামলায় যুব-মহিলালীগ নেত্রী গ্রেফতার! ৪ মামলায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি’কে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করেছে দাগনভূঁঞা থানা পুলিশ দূর্নীতিমুক্ত রিহ‍্যাব গড়তে চান আলিমুল্লাহ খোকন টিলাগাঁও আজিজুন নেছা উচ্চ বিদ্যালয়ের তৃতীয় বারের মত সভাপতি নির্বাচিত শামিম আহমদ

লামা-আলীকদম সড়কের বাস-জীপ মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠন কর্তৃক সিএনজি ড্রাইভার যাত্রীদের সন্ত্রাসীয় হামলা!

  • মাসুদ রানা
  • আপডেট সময় : ০৩:৩৬:১৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • ২১৫৪ বার পড়া হয়েছে

মুহাম্মদ এমরান বান্দরবান:- লামা-আলীকদম-চকরিয়া সড়কের বাস-জীপ মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠন,ড্রাইভার হেল্পার কর্তৃক সিএনজি চালক ও যাত্রীদের উপর সন্ত্রাসীয় হামলা চালিয়েছে।

(০৬ ফেব্রুয়ারী) মঙ্গলবার সকাল ১১ঘটিকার সময় লামা-চকরিয়ায় সড়কের হিমছড়ি রিজার্ভ এলাকা(সেগুন বাগান) সংলগ্ন রাস্তায় লামা-আলীকদম সড়কের বাস-জীপ মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠন এর ড্রাইভার হেল্পার কর্তৃক সিএনজির ড্রাইভারসহ যাত্রীদের উপর অতর্কিত ভাবে সন্ত্রাসীয় হামলা চালিয়েছে।এতে সিএনজি চালকসহ অনেক যাত্রী আহত হয়েছে।

সেইসাথে সিএনজিতে থাকা যাত্রীদের মোবাইল ও টাকা নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে।
সিএনজিতে থাকা যাত্রী,বান্দরবান ৩০০ নং আসনের জাতীয় পার্টির সাবেক এমপি প্রার্থী শহিদুল ইসলাম বলেন, পূর্বপরিকল্পিত ভাবে লামা থেকে চকরিয়ায় যাতায়াতের পথে হিমছড়ি রিজার্ভ এলাকায় অবস্থান করছিলো বাস-জীপ মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মীসহ ড্রাইভার ও হেল্পারগন। তারা প্রায় ৭টি জীব গাড়ি নিয়ে রাস্তায় অবস্থান করছিলো।  আমরা লামা থেকে চকরিয়া যাওয়ার পথে আমাদের উপর অনাকাঙ্খিত ভাবে হামলা চালিয়েছে।এতে আমার সিএনজির ড্রাইভারসহ আমরা অনেকে আহত হয়েছি।

অপরদিকে লামা ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট এর পেশকার মোঃ সাদ্দাম বলেন, আমি মোটরসাইকেল নিয়ে চকরিয়া থেকে লামার দিকে যাচ্ছিলাম,যাওয়ার পথে বাস-জীপ মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠন কর্তৃক সিএনজির ড্রাইভারসহ যাত্রীদের উপর হামলা করতে দেখে আমি রাস্তায় দাঁড়ায়, তখন অনাকাঙ্খিত ভাবে বাস-চান্দের গাড়ির সবাই মিলে আমার উপর ঝাপিয়ে পড়ে,  এতে আমি মারাত্মক ভাবে আহত হয়েছি। আমার নাক দিয়ে রক্ত বের হয়ছে। আমি প্রাথমিক ইয়াংছা ডাকারের কাছ থেকে চিকিৎসা নিয়েছি। আমার পকেটে  প্রায় পনেরো হাজার ৫০০টাকা মতো ছিলো,এর থেকে আমি ৫হাজার টাকা পেয়েছি। আমার আরো দশ হাজার টাকা মতো নিয়ে গেছে তারা, সেইসাথে আমার ব্যাবহৃত একটি এন্ড্রয়েড ফোন নিয়ে গেছে।

অপরদিকে চকরিয়া-লামা-আলীকদম সড়কে সিএনজি ও মাহিন্দ্র বন্ধের দাবীতে সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট ডেকেছে বাস-জীপ মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠন।

এদিকে লামা-আলীকদমের সিএনজির যাত্রীরা বলেন, আমাদের জন্য সিএনজি সবচেয়ে সুবিধা, কারণ আমরা যেকোনো মুহূর্তে সিএনজি সুবিধা নিতে পারি, এমনকি রাত ১২-০১ ঘটিকার সময় কল দিলেও সিএনজি চলে আসে। আমাদের একটা অসুস্থ রোগী হাসপাতালে নিতে চাইলেও আমাদের সিএনজি কাজে আসে। বাস এবং জীব সবসময় পাইনা। সিএনজি আমাদের জন্য সুবিধা বেশি।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদের ববি শাখার নেতৃত্বে ইব্রাহিম-শান্ত

লামা-আলীকদম সড়কের বাস-জীপ মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠন কর্তৃক সিএনজি ড্রাইভার যাত্রীদের সন্ত্রাসীয় হামলা!

আপডেট সময় : ০৩:৩৬:১৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

মুহাম্মদ এমরান বান্দরবান:- লামা-আলীকদম-চকরিয়া সড়কের বাস-জীপ মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠন,ড্রাইভার হেল্পার কর্তৃক সিএনজি চালক ও যাত্রীদের উপর সন্ত্রাসীয় হামলা চালিয়েছে।

(০৬ ফেব্রুয়ারী) মঙ্গলবার সকাল ১১ঘটিকার সময় লামা-চকরিয়ায় সড়কের হিমছড়ি রিজার্ভ এলাকা(সেগুন বাগান) সংলগ্ন রাস্তায় লামা-আলীকদম সড়কের বাস-জীপ মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠন এর ড্রাইভার হেল্পার কর্তৃক সিএনজির ড্রাইভারসহ যাত্রীদের উপর অতর্কিত ভাবে সন্ত্রাসীয় হামলা চালিয়েছে।এতে সিএনজি চালকসহ অনেক যাত্রী আহত হয়েছে।

সেইসাথে সিএনজিতে থাকা যাত্রীদের মোবাইল ও টাকা নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে।
সিএনজিতে থাকা যাত্রী,বান্দরবান ৩০০ নং আসনের জাতীয় পার্টির সাবেক এমপি প্রার্থী শহিদুল ইসলাম বলেন, পূর্বপরিকল্পিত ভাবে লামা থেকে চকরিয়ায় যাতায়াতের পথে হিমছড়ি রিজার্ভ এলাকায় অবস্থান করছিলো বাস-জীপ মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মীসহ ড্রাইভার ও হেল্পারগন। তারা প্রায় ৭টি জীব গাড়ি নিয়ে রাস্তায় অবস্থান করছিলো।  আমরা লামা থেকে চকরিয়া যাওয়ার পথে আমাদের উপর অনাকাঙ্খিত ভাবে হামলা চালিয়েছে।এতে আমার সিএনজির ড্রাইভারসহ আমরা অনেকে আহত হয়েছি।

অপরদিকে লামা ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট এর পেশকার মোঃ সাদ্দাম বলেন, আমি মোটরসাইকেল নিয়ে চকরিয়া থেকে লামার দিকে যাচ্ছিলাম,যাওয়ার পথে বাস-জীপ মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠন কর্তৃক সিএনজির ড্রাইভারসহ যাত্রীদের উপর হামলা করতে দেখে আমি রাস্তায় দাঁড়ায়, তখন অনাকাঙ্খিত ভাবে বাস-চান্দের গাড়ির সবাই মিলে আমার উপর ঝাপিয়ে পড়ে,  এতে আমি মারাত্মক ভাবে আহত হয়েছি। আমার নাক দিয়ে রক্ত বের হয়ছে। আমি প্রাথমিক ইয়াংছা ডাকারের কাছ থেকে চিকিৎসা নিয়েছি। আমার পকেটে  প্রায় পনেরো হাজার ৫০০টাকা মতো ছিলো,এর থেকে আমি ৫হাজার টাকা পেয়েছি। আমার আরো দশ হাজার টাকা মতো নিয়ে গেছে তারা, সেইসাথে আমার ব্যাবহৃত একটি এন্ড্রয়েড ফোন নিয়ে গেছে।

অপরদিকে চকরিয়া-লামা-আলীকদম সড়কে সিএনজি ও মাহিন্দ্র বন্ধের দাবীতে সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট ডেকেছে বাস-জীপ মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠন।

এদিকে লামা-আলীকদমের সিএনজির যাত্রীরা বলেন, আমাদের জন্য সিএনজি সবচেয়ে সুবিধা, কারণ আমরা যেকোনো মুহূর্তে সিএনজি সুবিধা নিতে পারি, এমনকি রাত ১২-০১ ঘটিকার সময় কল দিলেও সিএনজি চলে আসে। আমাদের একটা অসুস্থ রোগী হাসপাতালে নিতে চাইলেও আমাদের সিএনজি কাজে আসে। বাস এবং জীব সবসময় পাইনা। সিএনজি আমাদের জন্য সুবিধা বেশি।