ঢাকা ০৫:৫৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
মৌলভীবাজারে বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি একযুগ পর এসআই পরেশ কারবারি হত্যা মামলার পলাতক আসামী গ্রেপ্তার বাকেরগঞ্জে চেয়ারম্যান হানিফ তালুকদার কর্মসৃজন প্রকল্পের কাজ না করেই প্রকল্পের টাকা উত্তোলন প্রকাশ হলো সুজন-তুলসীর স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র “কলেজ গার্ল” গাজীপুরে পূর্ব শত্রুতার জেরে সাংবাদিকের গাছপালা কেটে ক্ষতিসাধন মধুপুরে প্রাইভেটকার ও মাহিন্দ্রার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২ আহত ৮ শিল্পী সমিতির সদস্যদের জন্য ১০ লাখ টাকা অনুদান দিলেন ডিপজল জুড়ী নদীর বাঁধে ভাঙন ভাঙনকবলিত স্থান পরিদর্শনে যান উপজেলা চেয়ারম্যান কিশোর রায় চৌধুরী মনি বিএনপি নেতার বাড়িতে আওয়ামী লীগ নেতাদের গোপন বৈঠক, গৌরনদীতে ব্যাপক তোলপাড় ! দেশীয় তৈরী বন্ধুকসহ একাদিক মামলার আসামী নিজাম উদ্দিন’কে গ্রেফতার করেছে দাগনভূঁঞা থানা পুলিশ

সিআইপি আদম তমিজী হক এর ৪৭তম জম্মদিন পালন

  • আপডেট সময় : ০২:০০:৪১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২২
  • ২৩১১ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ মানবিক বাংলাদেশ সোসাইটি কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান মানবিক বন্ধু, আদম তমিজি হকের ৪৭ তম শুভ জন্মদিন আজ।

ব্যারিস্টার তমিজুল হকের ছেলে আদম তামিজী হক ১৯৭৬ সালের ২৯ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। তিনি স্কুলজীবনে ইংল্যান্ডের বোর্ডিং স্কুলে কাটিয়েছি। ১৬ বছর বয়সে তিনি বোর্ডিং স্কুল ছেড়ে লন্ডনের একটি টিউটোরিয়াল কলেজে চলে যান। তানজানিয়ার জাঞ্জিবারে অল্প কিছুদিন থাকার পরে, আদম উত্তর ইংল্যান্ডের হাডারসফিল্ডে চলে যান এবং হাডারসফিল্ডের হিলটন হোটেলে কাজ করার আগে ক্যাটারিংয়ের একটি কোর্স করেন। 

আদম তমিজী হক যুক্তরাজ্যের মিডলসেক্স বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ১৮ বছর বয়স থেকে হক গ্রুপের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন, তবে ২০০২ সালে শুরু করার পরে তিনি শুধুমাত্র ড্রাইসেল এবং সাবানের ব্যবসায় যুক্ত ছিলেন এবং কেবল ২০১১ সালে ম্যানেজিং ডিরেক্টর হওয়ার পরে নিজেকে বিস্কুটের সঙ্গে জড়িত করেছেন। 

আদম তামিজী এখন বাংলাদেশে বসবাস করছেন, মানবাধিকার এবং সমাজের জন্য কাজ করছেন। তিনি ২০১৭ সালে রাজনীতিতে যোগদান করেন, বর্তমানে বাংলাদেশ সরকারের তত্ত্বাবধানে অনেক প্রকল্পে কাজ করছেন। বিদেশি বাণিজ্য ও দেশীয় ব্যবসায়ের প্রসারের মাধ্যমে হক গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ ৫০ হাজারেরও বেশি কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং শ্রমিকদের নিযুক্ত করেছেন। ব্যবসায়ী হিসেবে তিনি দেশের রাজস্ব খাতে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখেছেন।

আদম তামিজী হক (জন্মঃ ২৯ ডিসেম্বর, ১৯৭৬) একজন বাংলাদেশি শিল্পপতি, ব্যবসায়ী, এবং সমাজসেবক। তিনি এ. টি. হক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, মানবিক বাংলাদেশ সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এবং একজন বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি।

সুদূর ইংল্যান্ডে পড়াশোনা করার সময়ও তার হৃদয় বাংলাদেশেই ছিল। তার হৃদয় সর্বদা দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য কাঁদে। স্বপ্ন ছিল বাংলাদেশে এসে সৎ ও সাহসের সঙ্গে দেশ ও দেশবাসীর পক্ষে কাজ করা। তিনি যেকোনো দুর্যোগে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে মোকাবিলায় সব ধরনের লোকের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে প্রস্তুত। পারিবারিকভাবে সুযোগপ্রাপ্ত হওয়ায় তিনি তার সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। তিনি শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান ও রাস্তাঘাটের উন্নয়নে মানুষের পাশে ছিলেন।  

শৈশবকাল থেকেই তিনি ক্রমাগত বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, দিকনির্দেশ এবং বক্তৃতায় অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার নেতা ও রাজনৈতিক আদর্শ। রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে সরাসরি অংশ নেওয়ার আগে তিনি বঙ্গবন্ধু আদর্শের রাজনৈতিক নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তার সংগঠন ‘মনোবিক বাংলাদেশ সোসাইটি’ নগরীর প্রতিটি এলাকায় কাজ করছে। এর শাখা পুরো ঢাকাজুড়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়াও সমগ্র বাংলাদেশে এর শাখা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

আদম তমিজী হক সিআইপি দারিদ্র্যমুক্ত সমাজ গঠনে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন ।সুধু তাই নয় বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে অনুপ্রাণিত হয়ে আদম তমিজী হক দারিদ্র্যমুক্ত সমাজ গঠনের স্বপ্নকে লালন করেছিলেন। এ তরুণ শিল্পপতি মনে করেন যে ১৮০ মিলিয়ন মানুষের মৌলিক চাহিদা মেটাতে বাংলাদেশের সম্পদ রয়েছে; তবে সবার লোভকে সন্তুষ্ট করার পক্ষে তা যথেষ্ট নয়।

আদম তমিজী হক কেবল ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিই নন, তিনি সামাজিক ও নাগরিক দায়বদ্ধ ইতিবাচক পরিবর্তনের স্বপ্নদ্রষ্টাও বটে। ফলস্বরূপ, ব্যবসা সম্প্রসারণের পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটি পরিবেশ রক্ষা এবং রাজধানীকে একটি বাসযোগ্য শহর হিসেবে গড়ে তোলার স্বপ্নকে লালন করেছে।আদম তমিজী হক দরিদ্রদের মধ্যে উদার সমাজসেবী হিসেবে সুপরিচিত।

আদম তমিজী হক এমন একটি সমাজ গঠনে লড়াই করে যাচ্ছেন যেখানে দারিদ্র্যের অভিশাপ কেউ ভোগ করবে না।
তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে হৃদয়ে ধারণ করে, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার মনোবল হিসেবে কাজ করে মানবিক বাংলাদেশ গড়ার মনস্থির করেন। কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জনের জন্য আদম তমিজী হক মানবিক বাংলাদেশ নামে একটি সংস্থা গঠন করেছেন। এ দাতব্য প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তিনি অসহায় শিশুদের পড়াশোনা, চিকিৎসা ও শ্রমিকদের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে অবদান রাখেন নূরউদ্দিন রানা।

আদম তমিজী হক একজন প্রতিভাবান এবং সফল ব্যক্তিত্ব যিনি সাফল্য এবং কৃতিত্বের সিঁড়িতে উঠে এসেছেন। ২০১০ সালে তিনি হক গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন এবং হক গ্রুপকে বাংলাদেশের অন্যতম এফএমসিজি সংস্থা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেন।৪৭তম জম্মদিনে দেশবাসীসহ সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

মৌলভীবাজারে বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি

সিআইপি আদম তমিজী হক এর ৪৭তম জম্মদিন পালন

আপডেট সময় : ০২:০০:৪১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ মানবিক বাংলাদেশ সোসাইটি কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান মানবিক বন্ধু, আদম তমিজি হকের ৪৭ তম শুভ জন্মদিন আজ।

ব্যারিস্টার তমিজুল হকের ছেলে আদম তামিজী হক ১৯৭৬ সালের ২৯ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। তিনি স্কুলজীবনে ইংল্যান্ডের বোর্ডিং স্কুলে কাটিয়েছি। ১৬ বছর বয়সে তিনি বোর্ডিং স্কুল ছেড়ে লন্ডনের একটি টিউটোরিয়াল কলেজে চলে যান। তানজানিয়ার জাঞ্জিবারে অল্প কিছুদিন থাকার পরে, আদম উত্তর ইংল্যান্ডের হাডারসফিল্ডে চলে যান এবং হাডারসফিল্ডের হিলটন হোটেলে কাজ করার আগে ক্যাটারিংয়ের একটি কোর্স করেন। 

আদম তমিজী হক যুক্তরাজ্যের মিডলসেক্স বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ১৮ বছর বয়স থেকে হক গ্রুপের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন, তবে ২০০২ সালে শুরু করার পরে তিনি শুধুমাত্র ড্রাইসেল এবং সাবানের ব্যবসায় যুক্ত ছিলেন এবং কেবল ২০১১ সালে ম্যানেজিং ডিরেক্টর হওয়ার পরে নিজেকে বিস্কুটের সঙ্গে জড়িত করেছেন। 

আদম তামিজী এখন বাংলাদেশে বসবাস করছেন, মানবাধিকার এবং সমাজের জন্য কাজ করছেন। তিনি ২০১৭ সালে রাজনীতিতে যোগদান করেন, বর্তমানে বাংলাদেশ সরকারের তত্ত্বাবধানে অনেক প্রকল্পে কাজ করছেন। বিদেশি বাণিজ্য ও দেশীয় ব্যবসায়ের প্রসারের মাধ্যমে হক গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ ৫০ হাজারেরও বেশি কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং শ্রমিকদের নিযুক্ত করেছেন। ব্যবসায়ী হিসেবে তিনি দেশের রাজস্ব খাতে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখেছেন।

আদম তামিজী হক (জন্মঃ ২৯ ডিসেম্বর, ১৯৭৬) একজন বাংলাদেশি শিল্পপতি, ব্যবসায়ী, এবং সমাজসেবক। তিনি এ. টি. হক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, মানবিক বাংলাদেশ সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এবং একজন বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি।

সুদূর ইংল্যান্ডে পড়াশোনা করার সময়ও তার হৃদয় বাংলাদেশেই ছিল। তার হৃদয় সর্বদা দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য কাঁদে। স্বপ্ন ছিল বাংলাদেশে এসে সৎ ও সাহসের সঙ্গে দেশ ও দেশবাসীর পক্ষে কাজ করা। তিনি যেকোনো দুর্যোগে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে মোকাবিলায় সব ধরনের লোকের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে প্রস্তুত। পারিবারিকভাবে সুযোগপ্রাপ্ত হওয়ায় তিনি তার সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। তিনি শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান ও রাস্তাঘাটের উন্নয়নে মানুষের পাশে ছিলেন।  

শৈশবকাল থেকেই তিনি ক্রমাগত বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, দিকনির্দেশ এবং বক্তৃতায় অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার নেতা ও রাজনৈতিক আদর্শ। রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে সরাসরি অংশ নেওয়ার আগে তিনি বঙ্গবন্ধু আদর্শের রাজনৈতিক নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তার সংগঠন ‘মনোবিক বাংলাদেশ সোসাইটি’ নগরীর প্রতিটি এলাকায় কাজ করছে। এর শাখা পুরো ঢাকাজুড়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়াও সমগ্র বাংলাদেশে এর শাখা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

আদম তমিজী হক সিআইপি দারিদ্র্যমুক্ত সমাজ গঠনে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন ।সুধু তাই নয় বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে অনুপ্রাণিত হয়ে আদম তমিজী হক দারিদ্র্যমুক্ত সমাজ গঠনের স্বপ্নকে লালন করেছিলেন। এ তরুণ শিল্পপতি মনে করেন যে ১৮০ মিলিয়ন মানুষের মৌলিক চাহিদা মেটাতে বাংলাদেশের সম্পদ রয়েছে; তবে সবার লোভকে সন্তুষ্ট করার পক্ষে তা যথেষ্ট নয়।

আদম তমিজী হক কেবল ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিই নন, তিনি সামাজিক ও নাগরিক দায়বদ্ধ ইতিবাচক পরিবর্তনের স্বপ্নদ্রষ্টাও বটে। ফলস্বরূপ, ব্যবসা সম্প্রসারণের পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটি পরিবেশ রক্ষা এবং রাজধানীকে একটি বাসযোগ্য শহর হিসেবে গড়ে তোলার স্বপ্নকে লালন করেছে।আদম তমিজী হক দরিদ্রদের মধ্যে উদার সমাজসেবী হিসেবে সুপরিচিত।

আদম তমিজী হক এমন একটি সমাজ গঠনে লড়াই করে যাচ্ছেন যেখানে দারিদ্র্যের অভিশাপ কেউ ভোগ করবে না।
তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে হৃদয়ে ধারণ করে, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার মনোবল হিসেবে কাজ করে মানবিক বাংলাদেশ গড়ার মনস্থির করেন। কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জনের জন্য আদম তমিজী হক মানবিক বাংলাদেশ নামে একটি সংস্থা গঠন করেছেন। এ দাতব্য প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তিনি অসহায় শিশুদের পড়াশোনা, চিকিৎসা ও শ্রমিকদের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে অবদান রাখেন নূরউদ্দিন রানা।

আদম তমিজী হক একজন প্রতিভাবান এবং সফল ব্যক্তিত্ব যিনি সাফল্য এবং কৃতিত্বের সিঁড়িতে উঠে এসেছেন। ২০১০ সালে তিনি হক গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন এবং হক গ্রুপকে বাংলাদেশের অন্যতম এফএমসিজি সংস্থা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেন।৪৭তম জম্মদিনে দেশবাসীসহ সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি।