ঢাকা ১১:৩৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
৮ মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও নিয়ে চিন্তিত সীমা সরকার দেশজুড়ে তোলপাড়! বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটি জেলা কমিটি অনুমোদন সভাপতি কামরুজ্জামান সম্পাদক বাদশা এটিএন বাংলার চায়ের চুমুকে সংগঠক ও বিনোদন সাংবাদিক আবুল হোসেন মজুমদার ৭ ঘণ্টা অন্ধকারে রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের প্রধান কার্যালয় টাটা মটরস বাংলাদেশে উদ্বোধন করলো টাটা যোদ্ধা প্রাইভেট পড়ানোর নামে স্কুল ছাত্রদের সাথে বিকৃত যৌনাচার শিক্ষক’কে গ্রেফতার করেছে: সিআইডি সীতাকুণ্ডে হজ্ব প্রশিক্ষণ কর্মশালা সম্পন্ন সীতাকুণ্ডে ট্রাকে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কা, চালক নিহত চট্টগ্রাম কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে বাকেরগঞ্জে দোয়া মিলাদ অনুষ্ঠিত

সিকিউরিটির চাকুরীর প্রলোভনে পাশবিকভাবে নির্যাতনে প্রতারক চক্রের ১৪ সদস্য গ্রেফতার

  • মাসুদ রানা
  • আপডেট সময় : ০৯:০০:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০২৪
  • ২০২৭ বার পড়া হয়েছে

জসীম উদ্দিনঃ গত ১৯ মার্চ ২০২৪ ইং বেস্ট এ্যাকশন সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেড নামে একটি প্রতিষ্ঠানের অনলাইনে চাকুরীর বিজ্ঞপ্তি দেখতে পেয়ে ভিকটিম সাকিব হোসেন ও তার পূর্ব পরিচিত ফারজানা আক্তার পাখি উভয়েই চাকুরীর প্রত্যাশায় উক্ত কোম্পানীতে আসলে কোম্পানীর লোকেরা তাদেরকে আটক করে শারিরীকভাবে নির্যাতন করে এবং ভিকটিমের পরিবারের নিকট ফোন দিয়ে মুক্তিপন বাবদ ৫ লক্ষ টাকা দাবি করে। বর্ণিত বিষয়ে একই তারিখে ভিকটিমের বাবা ছেলেকে উদ্ধারের জন্য র‍্যাব-১ সিপিএসসি, গাজীপুর এর নিকট আইনি সহায়তা কামনা করেন। র‍্যাব-১ সিপিএসসি, গাজীপুর উক্ত প্রতারক চক্রকে গ্রেফতারের লক্ষে গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে।

এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ২০ মার্চ ২০২৪ ইং তারিখ ১২.৫০ ঘটিকায় সিপিএসসি,গাজীপুর এর একটি আভিযানিক দল গাজীপুর জেলার গাছা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য মোঃ আস্তাকুল আমিন আনাম (৩০)মোঃ তৌফিক (২৪)মোঃ ইমরান হোসেন (১৯)মোঃ জুনায়েদ (২১)মোঃ রনি আহমেদ (২১)সালাউদ্দিন সরকার (২০)মোঃ জিসান হোসেন (২১)মোঃ রায়হান (১৮) মোঃ আতিক হাসান (১৯)আজিজুল হাকিম (২৩)সম্পা আক্তার (২৪)মোছাঃ বিউটি খাতুন (২১)বর্ষা খাতুন (১৯)তাহসিন আক্তার মীম (২০)দের গ্রেফতার করা হয়।

এসময় ভিকটিম সাকিব ও ফারজানা ছাড়াও আরো ২৫ জন সহ সর্বমোট ২৭ জন ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা বিভিন্ন প্রতারণার সাথে তাদের সম্পৃক্ততার বিষয়ে তথ্য প্রদান করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তারা একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র। দীর্ঘদিন যাবৎ এই চক্রটি বিভিন্ন সময়ে বেস্ট এ্যাকশন সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেড নামক প্রতিষ্ঠান এবং তাদের ব্যবহৃত অনেক কাগজপত্র উদ্ধার করে র‍্যাব-১ ।

অনলাইনে ভুয়া চাকুরীর বিজ্ঞপ্তি দিয়ে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণার মাধ্যমে বিপুল অংকের অর্থ হাতিয়ে নেয়। চক্রটি প্রায় ০৩ মাস যাবৎ এই প্রতারণা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। চক্রটির মোট সদস্য সংখ্যা ২০ জন এবং চক্রটির মূলহোতা গ্রেফতারকৃত ৫ জন।চক্রের অন্যান্য সদস্যরা বিভিন্ন এলাকার চাকুরী প্রত্যাশীদের অর্থের বিনিময়ে চাকুরী দেয়ার কথা বলে এই চক্রের মূলহোতা গ্রেফতারকৃত মোঃ আস্তাকুল আমিন আনাম (৩০)মোঃ তৌফিক (২৪)মোঃ ইমরান হোসেন (১৯) ৪। মোঃ জুনায়েদ (২১)মোঃ রনি আহমেদ (২১)দের নিকট নিয়ে আসত।

গ্রেফতারকৃত ১৪ জন চাকুরী প্রত্যাশীদের বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে এমনকি আটক করে রেখে তাদের পরিবারের নিকট থেকে বিপুল অংকের নগদ অর্থ হাতিয়ে নিত। তারা প্রতারণার মাধ্যমে চাকুরী দেয়ার নামে অসংখ্য ব্যক্তির নিকট হতে প্রতারণার মাধ্যমে প্রায় কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এছাড়াও চক্রটির স্থায়ীভাবে কোন অফিস ছিল না বিধায় গ্রেফতারকৃত আসামীরা রশিদ মার্কেট, হারিকেন রোড, থানা-গাছা, জিএমপি গাজীপুর এলাকায় ভাড়া বাসাকে তারা অস্থায়ী অফিস হিসেবে ব্যবহার করে আসছিল। আত্মগোপনের জন্য তারা প্রায়শই নিজেদের মোবাইল নম্বর বন্ধ রেখে নিকট আত্মীয় ও বন্ধু-বান্ধবের বাসায় অবস্থান করত।

গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, ভিকটিম সাকিব ও ফারজানা আক্তার উক্ত কোম্পানীতে চাকুরীর জন্য আসলে তারা তাদেরকে প্রথমে আটকে রেখে গাজীপুরের একটি অজ্ঞাত বাড়ীতে নিয়ে যায় এবং ভিকটিমদের পরিবারের নিকট ফোন করে (পাঁচ লক্ষ) টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।গ্রেফতারকৃত আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

৮ মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও নিয়ে চিন্তিত সীমা সরকার দেশজুড়ে তোলপাড়!

সিকিউরিটির চাকুরীর প্রলোভনে পাশবিকভাবে নির্যাতনে প্রতারক চক্রের ১৪ সদস্য গ্রেফতার

আপডেট সময় : ০৯:০০:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০২৪

জসীম উদ্দিনঃ গত ১৯ মার্চ ২০২৪ ইং বেস্ট এ্যাকশন সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেড নামে একটি প্রতিষ্ঠানের অনলাইনে চাকুরীর বিজ্ঞপ্তি দেখতে পেয়ে ভিকটিম সাকিব হোসেন ও তার পূর্ব পরিচিত ফারজানা আক্তার পাখি উভয়েই চাকুরীর প্রত্যাশায় উক্ত কোম্পানীতে আসলে কোম্পানীর লোকেরা তাদেরকে আটক করে শারিরীকভাবে নির্যাতন করে এবং ভিকটিমের পরিবারের নিকট ফোন দিয়ে মুক্তিপন বাবদ ৫ লক্ষ টাকা দাবি করে। বর্ণিত বিষয়ে একই তারিখে ভিকটিমের বাবা ছেলেকে উদ্ধারের জন্য র‍্যাব-১ সিপিএসসি, গাজীপুর এর নিকট আইনি সহায়তা কামনা করেন। র‍্যাব-১ সিপিএসসি, গাজীপুর উক্ত প্রতারক চক্রকে গ্রেফতারের লক্ষে গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে।

এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ২০ মার্চ ২০২৪ ইং তারিখ ১২.৫০ ঘটিকায় সিপিএসসি,গাজীপুর এর একটি আভিযানিক দল গাজীপুর জেলার গাছা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য মোঃ আস্তাকুল আমিন আনাম (৩০)মোঃ তৌফিক (২৪)মোঃ ইমরান হোসেন (১৯)মোঃ জুনায়েদ (২১)মোঃ রনি আহমেদ (২১)সালাউদ্দিন সরকার (২০)মোঃ জিসান হোসেন (২১)মোঃ রায়হান (১৮) মোঃ আতিক হাসান (১৯)আজিজুল হাকিম (২৩)সম্পা আক্তার (২৪)মোছাঃ বিউটি খাতুন (২১)বর্ষা খাতুন (১৯)তাহসিন আক্তার মীম (২০)দের গ্রেফতার করা হয়।

এসময় ভিকটিম সাকিব ও ফারজানা ছাড়াও আরো ২৫ জন সহ সর্বমোট ২৭ জন ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা বিভিন্ন প্রতারণার সাথে তাদের সম্পৃক্ততার বিষয়ে তথ্য প্রদান করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তারা একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র। দীর্ঘদিন যাবৎ এই চক্রটি বিভিন্ন সময়ে বেস্ট এ্যাকশন সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেড নামক প্রতিষ্ঠান এবং তাদের ব্যবহৃত অনেক কাগজপত্র উদ্ধার করে র‍্যাব-১ ।

অনলাইনে ভুয়া চাকুরীর বিজ্ঞপ্তি দিয়ে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণার মাধ্যমে বিপুল অংকের অর্থ হাতিয়ে নেয়। চক্রটি প্রায় ০৩ মাস যাবৎ এই প্রতারণা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। চক্রটির মোট সদস্য সংখ্যা ২০ জন এবং চক্রটির মূলহোতা গ্রেফতারকৃত ৫ জন।চক্রের অন্যান্য সদস্যরা বিভিন্ন এলাকার চাকুরী প্রত্যাশীদের অর্থের বিনিময়ে চাকুরী দেয়ার কথা বলে এই চক্রের মূলহোতা গ্রেফতারকৃত মোঃ আস্তাকুল আমিন আনাম (৩০)মোঃ তৌফিক (২৪)মোঃ ইমরান হোসেন (১৯) ৪। মোঃ জুনায়েদ (২১)মোঃ রনি আহমেদ (২১)দের নিকট নিয়ে আসত।

গ্রেফতারকৃত ১৪ জন চাকুরী প্রত্যাশীদের বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে এমনকি আটক করে রেখে তাদের পরিবারের নিকট থেকে বিপুল অংকের নগদ অর্থ হাতিয়ে নিত। তারা প্রতারণার মাধ্যমে চাকুরী দেয়ার নামে অসংখ্য ব্যক্তির নিকট হতে প্রতারণার মাধ্যমে প্রায় কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এছাড়াও চক্রটির স্থায়ীভাবে কোন অফিস ছিল না বিধায় গ্রেফতারকৃত আসামীরা রশিদ মার্কেট, হারিকেন রোড, থানা-গাছা, জিএমপি গাজীপুর এলাকায় ভাড়া বাসাকে তারা অস্থায়ী অফিস হিসেবে ব্যবহার করে আসছিল। আত্মগোপনের জন্য তারা প্রায়শই নিজেদের মোবাইল নম্বর বন্ধ রেখে নিকট আত্মীয় ও বন্ধু-বান্ধবের বাসায় অবস্থান করত।

গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, ভিকটিম সাকিব ও ফারজানা আক্তার উক্ত কোম্পানীতে চাকুরীর জন্য আসলে তারা তাদেরকে প্রথমে আটকে রেখে গাজীপুরের একটি অজ্ঞাত বাড়ীতে নিয়ে যায় এবং ভিকটিমদের পরিবারের নিকট ফোন করে (পাঁচ লক্ষ) টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।গ্রেফতারকৃত আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।