ঢাকা ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
৮ মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও নিয়ে চিন্তিত সীমা সরকার দেশজুড়ে তোলপাড়! বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটি জেলা কমিটি অনুমোদন সভাপতি কামরুজ্জামান সম্পাদক বাদশা এটিএন বাংলার চায়ের চুমুকে সংগঠক ও বিনোদন সাংবাদিক আবুল হোসেন মজুমদার ৭ ঘণ্টা অন্ধকারে রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের প্রধান কার্যালয় টাটা মটরস বাংলাদেশে উদ্বোধন করলো টাটা যোদ্ধা প্রাইভেট পড়ানোর নামে স্কুল ছাত্রদের সাথে বিকৃত যৌনাচার শিক্ষক’কে গ্রেফতার করেছে: সিআইডি সীতাকুণ্ডে হজ্ব প্রশিক্ষণ কর্মশালা সম্পন্ন সীতাকুণ্ডে ট্রাকে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কা, চালক নিহত চট্টগ্রাম কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে বাকেরগঞ্জে দোয়া মিলাদ অনুষ্ঠিত

৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা,মাদ্রাসা শিক্ষার্থী গ্রেফতার

  • মাসুদ রানা
  • আপডেট সময় : ০২:৫৪:২৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ নভেম্বর ২০২৩
  • ২১০৩ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃছয় বছরের শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে মোঃ ইয়াসিন আরাফাত (১৯) নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ রাতে মিরপুর মডেল থানার আহম্মেদনগর পাইকপাড়া থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার ইয়াসিন স্থানীয় একটি মাদ্রাসার দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। পাশাপাশি তিনি ওয়েল্ডিংয়ের কাজও করেন।

ভিকটিম তার বাবার সাথে নানা বাড়ি বেড়াতে আসে। সেখানে দুপুরে বাসার নিচে খেলতে যায় ভিকটিম। ওই সময় নিচেই ছিল ইয়াসিন। ইয়াসিন ভিকটিমকে টাকা দেওয়ার লোভ দেখিয়ে নিজ বাসার শয়নকক্ষে নিয়ে যান। এরপর তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এসময় শিশুর নানি তাকে খোঁজাখুঁজি করতে করতে ইয়াসিনের বাসায় চলে আসেন। ইয়াসিনকে ওই অবস্থায় দেখে আশপাশের লোককে সংবাদ দেন। পরবর্তীতে তারা ৯৯৯ এ অভিযোগ করলে মিরপুর মডেল থানার একটি দল শিশুটিকে উদ্ধার করে এবং ইয়াসিনকে গ্রেফতার করে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

৮ মিনিট ৩২ সেকেন্ডের ভিডিও নিয়ে চিন্তিত সীমা সরকার দেশজুড়ে তোলপাড়!

৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা,মাদ্রাসা শিক্ষার্থী গ্রেফতার

আপডেট সময় : ০২:৫৪:২৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ নভেম্বর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদকঃছয় বছরের শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে মোঃ ইয়াসিন আরাফাত (১৯) নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ রাতে মিরপুর মডেল থানার আহম্মেদনগর পাইকপাড়া থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার ইয়াসিন স্থানীয় একটি মাদ্রাসার দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। পাশাপাশি তিনি ওয়েল্ডিংয়ের কাজও করেন।

ভিকটিম তার বাবার সাথে নানা বাড়ি বেড়াতে আসে। সেখানে দুপুরে বাসার নিচে খেলতে যায় ভিকটিম। ওই সময় নিচেই ছিল ইয়াসিন। ইয়াসিন ভিকটিমকে টাকা দেওয়ার লোভ দেখিয়ে নিজ বাসার শয়নকক্ষে নিয়ে যান। এরপর তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এসময় শিশুর নানি তাকে খোঁজাখুঁজি করতে করতে ইয়াসিনের বাসায় চলে আসেন। ইয়াসিনকে ওই অবস্থায় দেখে আশপাশের লোককে সংবাদ দেন। পরবর্তীতে তারা ৯৯৯ এ অভিযোগ করলে মিরপুর মডেল থানার একটি দল শিশুটিকে উদ্ধার করে এবং ইয়াসিনকে গ্রেফতার করে।